ধরমপুর জেলার তারা মায়ের ‘আশীর্বাদধন্যা’ সাধিকা মায়ের বুজরুকি ফাঁস করলেন যুক্তিবাদী প্রবীর ঘোষ

উঃ ২৪ পরগনার ধরমপুর জেলার পলাশীগ্রামে রমরমিয়ে চলছে ধর্মীয় বুজরুকির ব্যবসা। এলাকার প্রসিদ্ধ ‘তারা মায়ের বাড়ি’তে আছেন এক অলৌকিক (!) ক্ষমতার অধিকারী সাধিকা মা। ছোটবেলায় তিনি নাকি স্বপ্নাদেশ পেয়েছিলেন। সেই থেকেই শনি, মঙ্গলবারে তার নাকি ভর হয়। ভক্তরা বলেন, ভর হলেই তিনি চটপট সকলের প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়ে দেন। মন্দিরের বাইরেই পুরোন মদের বোতলে দেদার বিক্রি হচ্ছে গঙ্গাজল। ভক্তরা কিনে নিয়ে মন্দিরে পুজো দিচ্ছেন। আর পুজোর ডালা ফেরত পেলেই দেখছেন গঙ্গাজলে ভাসছে রক্তজবা। আর সেই মহৌষধিতেই নাকি সকল সমস্যার সমাধান হচ্ছে, সেরে যাচ্ছে সকল রোগব্যাধি।

এমন ঈশ্বরীর রহস্যভেদ করতে ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতির পরামর্শে স্টিং অপারেশন করে ই-টিভি। ই-টিভির দুই সাংবাদিক ভক্ত সেজে তাদের কল্পিত সমস্যার কথা বলেন। তারা মায়ের সাধিকা অবশ্য অসীম অলৌকিক ক্ষমতা থাকা সত্ত্বেও কিছুই ধরতে পারলেননা।

এক সাংবাদিকের ‘না জন্মানো’ মেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে বিয়ে করেছে জানিয়ে দিলেন। অপর সাংবাদিকের কোন মামা নেই। তাকে অম্লানবদনে বলে দিলেন কয়েক মাসের ভিতরেই তার মামা মারা যাবেন।

এই না হলে অলৌকিক মহিমা !!!

২৪ আগস্ট,২০১৭ রাত ১০ঃ৩০ মিনিটে ই-টিভি বাংলার জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘চারজশিট’-এ এই ঘটনা সম্প্রচারিত হয়। সাক্ষাৎকারে সমিতির সভাপতি প্রবীর ঘোষ ভর বিষয়ে বক্তব্য রাখেন। চ্যানেলের গাড়ির ড্রাইভার মনোজ সিংকে হিপনোটিক সাজেশন দিয়ে সম্মোহিত করে হাতে ঢুকিয়ে দেন সিরিঞ্জের পুরো নিডল। কিন্তু, মনোজ কিছুই বুঝতে পারেননি।

এই ঘটনার মাধ্যমে আমরা আরও একবার প্রমাণ করলাম ঈশ্বর এবং অলৌকিক বলে কোনদিন কিছুই ছিলনা।

নিচে অনুষ্ঠানটির ভিডিও লিঙ্ক দেওয়া হল।

https://www.youtube.com/watch?v=0g4isTQPBuM&feature=youtu.be

If you found this article interesting, please copy the code below to your website.
x 
Share

Leave a Reply