প্রাথমিক তদন্তেই পাথর বৃষ্টি চালানো ভূতের পর্দা ফাঁস করল কিংকরবাটী-হরিপাল শাখা

গত ৯ আগস্ট ২০১৭ ‘ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতি’র কিংকরবাটী -হরিপাল শাখার পক্ষ থেকে একটি সত্যানুসন্ধান করা হল সিঙ্গুর লাগোয়া নসিবপুর গ্রামে।

কিছুদিন আগে এই শাখার সদস্যদের এক ব্যক্তি খবর দেন তার বাড়িতে প্রায়ই খুব পাথর বৃষ্টি হয়। কিন্তু যে পাথরগুলি ছুঁড়ছে তাঁকে দেখা যাচ্ছে না। এই ঘটনায় বাড়ির মানুষজন খুব বিরক্ত ও ভূত ভেবে ভয়ে আতঙ্কিত। অনেক চেষ্টা করেও তা কমছে না।

খবর পাওয়ার পর গত ৯ আগস্ট ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতির পক্ষ থেকে প্রাথমিক তদন্ত করতে মিহির কোলে, মনোজিৎ দাস এবং রাজেন দাস নসিবপুর গ্রামে পৌঁছান। সমিতির সদস্যরা সেখানে পৌঁছে জানতে পারেন এই ভূতের কথা এলাকার কেউ জানেই না।

ওই বাড়িটির পাশের বাড়ির লোক তো দূর, খোদ সেই ‘ভূতুরে বাড়ির’ মানুষরা পর্যন্ত জানেন না যে তাদের বাড়িতেই ভূত আছে – এমনই দাবি করেছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা।

প্রথম দিকে তারা আবাক হলেও কিছুক্ষনের মধ্যেই সব পরিস্কার হয়ে যায়। সমিতির সদস্যরা পুরো বিষয়টা নিয়ে খোঁজখবর নেওয়ার পর বিশ্লেষণ করে বুঝতে পারেন, তাদের যে ভূতের কথা জানিয়েছে সেই ব্যক্তি বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়েই এই রটনা চালিয়েছেন। ফেঁদেছেন ভূতের গল্প। কোনোদিন যদি ওই বাড়িতে পাথর পড়ে থাকে তা ওই ব্যক্তিই ফেলেছেন তাদের ভয় পাওয়াতে বা বিরক্ত করতে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। এই কারণেই ওই ব্যক্তি সমিতির সদস্যদের নানা ভাবে বিষয়টি জানিয়ে এর ব্যাখ্যা চাইলেও লিখিতভাবে তাঁর বাড়িতে গিয়ে অনুসন্ধান চালোনর আবেদন করেননি। সমিতির পক্ষ থেকে তাঁকে বারংবার লিখিত আবেদন করতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তিনি প্রত্যেক বারই নানা অজুহাতে তা এড়িয়ে যান। ফলে সমিতির সদস্যরা ওই বাড়িতে না ঢুকেই গ্রামে পৌঁছে তদন্তটি সম্পূর্ণ করেন।

If you found this article interesting, please copy the code below to your website.
x 
Share

Leave a Reply