ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতির বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্য – ২০১৭

সভাপতি প্রবীর ঘোষের বক্তব্য 

১৯-০৩-২০১৭

 ১ মার্চ ১৯৮৫ , ৭২/৮ দেবিনিবাস রোডের ছোট ফ্ল্যাটে ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতির জন্ম। তখন যারা সদস্য ছিলেন তাঁরা প্রত্যেকেই ছিলেন সাম্যে বিশ্বাসী। ইতিমধ্যে অনেক পথ অতিক্রম করেছে সমিতি। ২০০০,২০০১,২০০২, ২০০৩ ও ২০০৪ আমরা কোর বডির মিটিং করে গেছি বিভিন্ন জায়গায়, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে। ২০০৩ ও ২০০৪, এই দুই বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমে এমসিসি ও পিপ্‌লস ওয়ার গ্রপ দুই বিরোধী গোষ্ঠীকে শত্রুতা ভুলে সখ্যতায় আবদ্ধ করি আমরা।

আজও ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে, বাংলাদেশে, কাশ্মীরে ১ মার্চ যুক্তিবাদী দিবস হিসেবে পালিত হয়। এবছরও ১ মার্চ আমাদের বিভিন্ন শাখা সংগঠন যুক্তিবাদী দিবস পালন করেছে। এবার প্রথম লক্ষ্য করেছি, যুক্তিবাদী দিবস পালনের ক্ষেত্রে কিছু কিছু সদস্য অতি মাত্রায় কার্পণ্য প্রদর্শন করেছে, যারা এভাবে কার্পণ্য প্রদর্শন করে তারা সাম্যের সমাজ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে কিছু করতে পারবে বলে আমি বিশ্বাস করিনা।

আমাদের সমিতির বিভিন্ন শাখা সংগঠন থেকে দুজন করে সদস্যকে পাঠিয়েছি বিভিন্ন জায়গায় স্বয়ম্ভর গ্রাম প্রতিষ্ঠার কাজে। তারা সেখানে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের সাথে মিশে গিয়ে কাজ করে চলেছে।

আমাদের সমিতির নেতৃত্বের মধ্য অনেককেই বড় বড় প্রতিশ্রুতি দেওয়া এবং তা পালন না  করতে দেখেছি। তাদের এই ধরণের হিরো  সাজার প্রবণতা আমাকে দুঃখ দিয়েছে।

আমরা ফান্ডেড এনজিও না। আমরা প্রতি বছর মার্চে একটা কনফারেন্স করি এবং দুটো ওয়েবসাইট চালাই ও এই দুটি সংগঠন চালানোর জন্যও রেজিস্ট্রেশনেরও খরচ লাগে। এই খরচাগুলো আমাদেরই বহন করতে হয়। যারা সমিতিকে নিজের মনে করেন, তাদের বলব আমাদের অর্থ সাহায্য করুন।

২০১৬ সালে কোলকাতা বইমেলায় আমাদের ক্ষতি হয়েছে ২০ হাজার টাকা। অর্থাৎ আমাদের সমিতিরই দু-একজন এই টাকা চুরি করেছে। এবছর বইমেলার দায়িত্ব একা কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন সঞ্জয়, খুবই সুচারু ভাবে আমাদের কিছু লাভ করিয়েছেন।

আমাদের সমিতির একটি স্থায়ী আস্থানার খুবই প্রয়োজন। কিন্তু ৭২/৮ দেবিনিবাস রোড, কোন স্থায়ী আস্থানা না। ভাড়াটে বাসা। মুখে মুখে বড় বড় কথা না বলে কোনও সদস্য কি তার মালিকানার ফ্ল্যাট বা বাড়িটি আমাদের সমিতির কাজে ব্যবহার করতে দেবেন?

আমি প্রবীর ঘোষ, এবং আমার স্ত্রী সীমা ঘোষ প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি দেবী কমপ্লেক্স, ফ্ল্যাট নং ১০৪ আমাদের অবর্তমানে ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতি, ও হিউম্যানিস্ট্‌স অ্যাসোসিয়েশানের অফিস হিসেবে স্থায়ী ভাবে ব্যবহার করা হবে। আমাদের শেষ ইচ্ছা পত্র সেইভাবেই লেখা থাকবে।

annual-conference-of-bhartiya-bigyan-o-juktibadi-samiti-humanists-association-2017-3

If you found this article interesting, please copy the code below to your website.
x 
Share

Leave a Reply