Only sorrow & condolences! Doesn’t Kolkata get really Angry?

By Anindya Jana

Click here to enlarge Courtesy: Anandabazar Patrika, December 13, 2011
If you found this article interesting, please copy the code below to your website.
x 
Share

10 Responses to “Only sorrow & condolences! Doesn’t Kolkata get really Angry?”

  1. biplab das 14 December 2011 at 11:47 PM #

    darun ekti lekha………. ANANDA BAZAR PATRIKA te anekdin por erokom ekti lekha porlam….. anindya babu ke erokom lekha r jonno dhonyobad.

  2. Humanists' Association 15 December 2011 at 10:31 AM #

    Wonderful article! We should never forget and never despair. All individuals, all realtives of victims and all Human rights organizations — please keep this in mind– we have to get together and fight for justice & see the culprits punished. Let us get united –ONCE and Do something.
    It calls for immediate joint effort — and not tears & solace.

  3. Dwijapada Bouri 15 December 2011 at 2:56 PM #

    Good article, thanks to Anindya Jana.

  4. Madhusudan Mahato 15 December 2011 at 3:14 PM #

    Good article. Thanks to ABP and Aninda Babu.

  5. Himadri 15 December 2011 at 3:26 PM #

    Thanks for this article….

  6. billubhai 15 December 2011 at 10:20 PM #

    AMRI kander por dekhlam ANANDA BAZAR PATRIKA ektu ghure darate sikheche…… na hole ja hoechilo……..RAJYA SARKARER MUKHOPOTRO…….

  7. A K Bairagi 17 December 2011 at 8:11 AM #

    সত্যি অনিন্দ জানার লেখাটা অসাধারণ লেখা। জানা কে ধন্যবাদ। ধন্যবাদ আনন্দবাজার ও স্রাইকেও এমন একটি লেখা প্রকাশ করার জন্য। এই বিষয়ে আমি কয়েকটি কথা বলতে চাই।

    কিশেনজি মারা গেলেন, আমরা জানতেও পারলাম না কি তার অপরাধ ছিল। পুলিশ ও রাজনৈতিক দল কিশেঞ্জির নামে ভুরি ভুরি অভিযোগ করেছে। পুলিশ ও নেতাদের কথা কেউ বিশ্বাস করে না। তাই সে সব বিশ্বাসযোগ্য নয়। যতক্ষণ না বিচার করে আদালতে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হচ্ছে ততক্ষণ সে দোষী নয়। অন্তত আইন তাই বলে। আলচনার নামে ডেকে এনে একা পেয়ে তাকে সামনে থেকে গুলি করে মেরেছে পুলিশ। তারপরে গল্প ফেঁদেছে। আরে বাবা গল্পটা তো একটু বুদ্ধি করে ফাঁদা উচিত ছিল? কিশেন জির বিচার পাওয়ার অধিকার ছিল কিন্তু সে পায়নি।

    আমরি কাণ্ডে মারা গেলেন ৯০-এর বেশি মানুষ। আবার বিষ মদ কাণ্ডে প্রায় ২০০ জন মানুষ মারা গেল। সারা বিশ্বে সরবাধিক। যাদের ভুল বা গাফিলতিতে এত গুলো গরিব মানুষ মারা গেল কোন প্রকার ক্ষমার যোগ্য? পশিমবঙ্গ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড করে ফেলল। যাদের গাফিলতিতে এত গুলো মানুষের প্রাণ গেল তাদের কি কোন বিচার পাওয়ার অধিকার আছে? না তারা বিচার পাওয়ার যোগ্য? অভিযোগ থাকলেই যদি গুলি করে মারতে হয়, কিশেন জির মত ওদেরও বিচার না করেই সরাসরি গুলি করে মারা উচিত। পুলিশ প্রশাসন ও সরকারের দিক থেকে লজিক অন্তত তাই বলে। একই যাত্রায় পৃথক ফল কেন?

    আর একটা কথা আমরি কাণ্ড বা বিষ মদ কাণ্ড বলুন সরকারি কোষাগার থেকে কোটি কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হচ্ছে কেন? যাদের জন্য এই দুর্ঘটনা তাদের থেকেই নেওয়া হোক ক্ষতিপূরণের টাকা। দোষ করবে রাম আর গুনগার দেবে শ্যাম? বা বেশ মজা তো? সাধারণ মানুষের ট্যাক্সের টাকায় এই ক্ষতিপুরন কেন? আমার মতে এই টাকা তোলা উচিত আমরি হাসপাতাল মালিকদের কাছ থেকে ও বিষ মদ কাণ্ডে সে সমস্ত মদের ভাটির মালিক, চালানকারি স্থানীয় থানার পুলিশ, বিধায়ক, এম পি, যাদের প্রশ্রয়ে মদের কারবার রমরমা হয়েছে।

  8. sujoy chanda 18 December 2011 at 8:15 PM #

    good post

  9. biplab das 19 December 2011 at 9:19 AM #

    good comment A.K. BAIRAGI… analysis from different angle.

  10. Profile photo of Manish Ray Chaudhuri
    Manish 24 December 2011 at 7:28 PM #

    Very good article!!!


Leave a Reply